আমাদের রমজানের প্রস্তুতি -১

আলহামদুলিল্লাহ। মহান আল্লাহর অশেষ মেহেরবানী আমরা ইতোমধ্যেই মুমিনদের আধ্যাত্মিক ঋতুতে প্রবেশ করেছি। রজব মাসে এ ঋতু শুরু হয় এবং রমজানের রোজার মধ্য দিয়ে এটি পূর্ণতা লাভ করে। রসুল স. আমাদের যেমনটি শিখিয়ে গেছেন, রমজানের প্রস্তুতি এখন থেকেই শুরু করতে হবে। রজব মাস হচ্ছে বীজ বপনের মাস, সাবান হচ্ছে পরিচর্যার এবং রমজান হচ্ছে ফল ধরার মাস। কাজেই ফসল ভালো ভাবে ঘরে তুলতে হলে প্রস্তুতিও ভালো দরকার। এজন্য রসুল স এর শিখানো দোয়া বেশি বেশি পড়া দরকার। اَللّٰهُمَّ بَارِكْ لَناَ فِيْ رَجَبٍ وَشَعْبانَ وَبَلّغْنَا رَمَضَانْ
আসমান জমিন, সমস্ত জগত, বছর, দিন, মাস -সময় সব কিছুই আল্লাহ সৃষ্টি করেছেন। চারটি মাসকে বিশেষ গুরুত্বদিয়ে সম্মানিত করা হয়েছে। এর মধ্যে রজব অন্যতম। আমরা পৃথিবীতে থাকি বা না থাকি একটি নির্দিষ্ট সীমা পর্যন্ত এসব অব্যাহত গতিতে চলতে থাকবে। গত বছর রজব পেয়েছে কিন্তু এই আধ্যাত্মিক ঋতুর শেষ পর্যন্ত পৃথিবীতে থাকতে পারেনি এমন মানুষ অনেক। আবার রমজান পর্যন্ত জীবিত ছিল কিন্তু এ বছর রমজান পায়নি বা পাবেনা এমন মানুষের সংখ্যাও অনেক। সেদিক থেকে এখনও পর্যন্ত আমরা ভাগ্যবান। এজন্য রসুল স এর শিখানো দোয়া আবারো পড়ি:
اَللّٰهُمَّ بَارِكْ لَناَ فِيْ رَجَبٍ وَشَعْبانَ وَبَلّغْنَا رَمَضَانْ
আমরা যারা গত রমজানে নিজের জীবনকে বদলাতে পারিনি বা কাঙ্খিত মানে নিতে পারিনি; তাদের জন্য সুযোগটি আবার এসেছে। এমাসে রোজা রাখা, বেশি বেশি আস্তাগফার করা, সাধ্যমত দান সাদকা করা এবং দোয়ার মধ্যে থাকার বিষয়ে প্রচুর তাগিদ আছে। পাশাপাশি এ মাস শান্তি প্রতিষ্ঠার মাস, ইসরা ও মেরাজের মাস, মুমিনের স্টেটাস উপরে নিয়ে যাওয়ার মাস। এই ফাঁকে জেরুজালেমে নবীদের সালাতে রসুল স. এর নেতৃত্ব দানের তাৎপর্য অনুধাবন এবং বাস্তব জীবন নিয়ে ভাবনার দাবিটিও মনের মাঝে পাখা ঝাপটায়; উম্মাহকে নিয়ে ভাবতে বলে।
আল্লাহ আমাদের রমজানের প্রস্তুতি সুন্দর করে দিক। আমিন।

Tagged with:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*